Saturday, March 2, 2024
Latest Newsফিচার নিউজরাজ্য

কোথায় বিভেদ সৃষ্টিকারীরা? বন্ধু পাপাই-কে রক্ত দিতে হায়দরাবাদ থেকে ছুটে এলেন আলিফ-সেলিমরা

দৈনিক সমাচার, ডিজিটাল ডেস্ক:  এ দেশ, এ বাংলা সম্প্রীতিতে পরিপূর্ণ। কিন্তু দুঃখের বিষয়, এক শ্রেণীর মানুষ এই সম্প্রীতির বন্ধন ভাঙার জন্য একেবারে উঠে পড়ে লেগেছে। যখন এই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি কেউ ভাঙার চেষ্টা করেছে তখনই পাপাই-আলিফদের মতো কেউ এসে ফের সম্প্রীতির বন্ধনের কথা মনে করিয়ে দিয়েছে। তারা বার বার মনে করিয়ে দিয়েছে এ দেশ, এ বাংলা সম্প্রীতির বন্ধনের অন্যতম জায়গা। কোনও ভাবেই তা ভাঙা যাবে না।

গত তিন সপ্তাহ আগে হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন মুর্শিদাবাদের নওদার গোঘাটা গ্রামের পাপাই মণ্ডল। আমতলা গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার পর জানা গিয়েছিল, তাঁর হিমোগ্লোবিনের মাত্রা নেমে এসেছে ৩.৫%-এ। মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে ক’দিন চিকিৎসার পরে তাঁকে রেফার করে দেওয়া হয়েছিল এনআরএস হাসপাতালে। কিন্তু সপ্তাহখানেকের চিকিৎসায় আর যাই হোক রক্ত মেলেনি। পাপাইয়ের সঙ্গে আলিফের বন্ধুত্ব সেই গ্রাম-জীবনের। বন্ধুত্বটা সেই পঞ্চম শ্রেণি থেকে। বারো ক্লাশের পরে পেশার টানে ছিটকে গেলেও পারস্পারিক টান যে রয়ে গিয়েছিল। বন্ধু পাপাই রক্ত সঙ্কটে ভুগছে, ফেসবুকে খবরটা চোখে পড়তেই আর দেরি করেননি। আর তাই বন্ধু পাপাই-কে রক্ত দিতে হায়দরাবাদ থেকে ছুটে এলেন আলিফ-সেলিমরা।

আলিফ বলছেন, ‘‘এক সঙ্গে হুটোপুটি করেছি, তার জন্য এক ইউনিট রক্ত দেব না, হয় নাকি!’’ পাপাইয়ের মা রানিদেবী বলছেন, ‘‘এখনও দেবদূত আছে বাবা, তাঁর কোনও জাত-ধর্ম হয়না। আলিফ-সেলিমকে দেখে তাই মনে হল!’’

 

 

Leave a Reply

error: Content is protected !!