Latest Newsইতিহাসফিচার নিউজ

৪ হাজার বছর পুরোনো সিন্ধু সভ্যতায় মানুষের প্রিয় খাদ্যই ছিল গরু ও খাসির মাংস

দৈনিক সমাচার ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় ৪ হাজার বছর পুরোনো সিন্ধু সভ্যতায় মানুষের জীবনশৈলী নিয়ে গবেষণায় উঠে এলে খাদ্য সম্পর্কে এক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। গবেষণা থেকে জানা যায় এই সময় মানুষের খাদ্য তালিকায় প্রথম পছন্দ ছিল মাংস। সিন্ধু সভ্যতায় আবিষ্কৃত মাটির বাসন এবং খাদ্যাভ্যাসের ধরণ – ধারণ নিয়ে এই গবেষণা হয়।

এছাড়াও সেসময়ে ফসলের গুণাগুণ নিয়েও গবেষণা হয়। গ্ৰাম বা শহরের খাদ্যাভ্যাস একই রকম ছিল। এবং তখন বেশি রভাগই গ্ৰাম ছিল। গ্ৰামের মানুষ মহিষ, ছাগল ও শুয়োরের মাংস খেত। গবেষণায় জানা যায় , ওই সময় গ্ৰামে গরু – মহিষ প্রধান গবাদিপশু ছিল। কারণ সিন্ধুতে পাওয়া ৫০ – ৬০ শতাংশ হাড় গরু ও মহিষের। মাত্র ১০ শতাংশ ছাগলের। এই দেহাংশের হাড় এটাও প্রমাণ করে সেসময় মানুষ বীফ ও মটন খাদ্য তালিকায় রাখত। দুধের জন্যও মহিষ লালন পালন করা হত। চাষাবাদের জন্য ষাঁড়ের ব্যবহার ছিল।

কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক অধ্যক্ষ সূর্য নারায়ণ তাঁর গবেষণায় সিন্ধু সভ্যতায় খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কিত এই তথ্য সামনে আনেন। এই গবেষণা বেশিরভাগটাই হরিয়াণার সিন্ধু উপত্যকার সভ্যতার ক্ষেত্র হিসার করা হয়। এছাড়া লোহারি রাধো (হিসার,মসুদপুর (হিসার) এবং আলমগীড়পুর (মেরঠ,উত্তরপ্রদেশে) থেকে আবিষ্কার হয়েছে মাটির পাত্র। এই পাত্রের নমুনা পরীক্ষা করে জানা গিয়েছে, এই সব পাত্রতে বেশিরভাগই মাংস তৈরির জন্য ব্যাবহার করা হত। এই সভ্যতায় গম, চাল,আঙুর,শশা,বেগুন,হলুদ,তিন এবং পাটের ফলন করা হত।

প্রাগৈতিহাসিক সময় থেকে সিন্ধু সভ্যতার বিস্তার আধুনিক পাকিস্তান, উত্তর-পশ্চিম ভারত,দক্ষিণ ভারত এবং আফগানিস্তানের কিছু এলাকায় মধ্যে আবদ্ধ ছিল।

Leave a Reply

error: Content is protected !!