Latest Newsফিচার নিউজরাজ্য

শেষ বেলায় মমতা সেই মোদীর পাশেই!

ছবি : সংগৃহিত

দৈনিক সমাচার, ডিজিটাল ডেস্ক: আজ দেশজুড়ে বামেদের সমস্ত শ্রমিক সংগঠন সহ প্রায় ৬০ টি শ্রমিক সংগঠন মিলে ধর্মঘটের ডাক দেয়। রাজ‍্যের সর্বত্র রাস্তায় নেমে ধর্মঘট পালন করেন শ্রমিক সংগঠনের কর্মীরা। কিন্তু একাধিক জায়গায় বনধ সমর্থনকারীদের উপর লাঠিচার্জ করেন পুলিশ। গ্ৰেফতার করা হয় একাধিক ধর্মঘটীদের। আর এই নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে বিরোধীরা। তাদের অভিযোগ, শেষ বেলায় মমতা সেই মোদীর পাশেই!

অতিমারীতেও মােদীর পাশে দাঁড়িয়ে ধর্মঘট ভাঙতে আগ্রাসী হলেন মমতা ব্যানার্জি। সর্বভারতীয় ধর্মঘটের আগের দিন একেবারে শেষবেলায় রােস্টার বৃহস্পতিবার ৫০ শতাংশ কর্মচারীর উপস্থিতি বাধ্যতামূলক বলে রাজ্য সরকার নির্দেশিকা জারি করে বাতিল করা হয় ছুটি। গরহাজির থাকলে কাটা হবে বেতন একদিনের চাকরিচ্ছেদের ( ডামস নন ) পূর্ব পরিচিত হুমকিও দিয়েছে নবান্ন। সরকারি কর্মসূচিতে গিয়ে সেদিনই মমতা ব্যানার্জি বাঁকুড়াতে গিয়ে দলের সভা করেন । হেলিকপ্টারে চড়ে দুপুরে নবান্নে ফেরেন মুখ্যমন্ত্রী । দলীয় সভাতে বৃহস্পতিবারের ধর্মঘট নিয়ে একটি শব্দও খরচ করেননি মমতা ব্যানার্জি । এইসঙ্গে সরকার ধর্মঘট নিয়ে কী ভূমিকা পালন করবে তারও কোনও নির্দেশিকা এদিন অফিস ছুটি পর্যন্ত জানাতে চায়নি নবান্ন । আধিকারিকদের হােয়াটস্যাপ মারফত ধর্মঘটের দিন রােস্টার মেনে ডিউটি যাতে চালু থাকে তার নির্দেশ ঘােরাফেরা করেছে । কিন্তু সেই নির্দেশে ছিল না কাজে যােগ না দিলে শাস্তির কোনও বিধান । ফলে ২৬ নভেম্বর ধর্মঘট নিয়ে সরকার ঠিক কী অবস্থান নিয়েছে তা স্পষ্ট হচ্ছিল না ।

ওয়াকিবহাল মহল মনে ছিল , এবার অতিমারার জন্য সরকার ধর্মঘট নিয়ে কিছু সিদ্ধান্ত নেবে । শুধুমাত্র রােস্টার মেনে ডিউটি সচল রাখার কথা জানানাে হবে । ধমটি নিয়ে সরকার কী এবার নরম , এমনও ধন্ধ ছিল কিছু মহলে । সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বুধবার রাতেই নবান্না স্পষ্ট করেছে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ডাকা ধর্মঘটে তারা মােদীর পাশে। শেষ প্রহরে এসে মােদীর পাশে থাকার বার্তা দিয়ে রাখলেন মমতা ব্যানার্জি ।

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ধর্মঘটে এর আগেও একই ভূমিকায় দেখা গেছে , মমতা বানার্জিকে । ১০ মাস আগে সিএএ , এনআরসি র বিরুদ্ধে গত ৮ জানুয়ারি ধর্মঘটে মমতা ব্যানার্জিকে পাশে পেয়েছিলেন নরেন্দ্র মােদী । এবার দেশে অন্য পরিস্থিতি । করােনার জন্য দেশে বহাল অতিমারী আইন। তাই ধর্মঘটে ১০০ শতাংশ উপস্থিতি নিশ্চিত করা সরকারের পক্ষে কঠিন ছিল । কিন্তু সেই আইন বাচিয়ে মমতা ব্যানার্জি মরিয়া হলেন ধর্মঘটের বিরুদ্ধের নিজে এরাজ্যে বিজেপির সহযােগী শক্তি যে তৃণমূল কংগ্রেস অতিমারীর এই আবহে শেষ প্রহরে ধর্মঘট বিরোধী সার্কুলার জারি করে বুঝিয়ে দিলেন মমতা ব্যানার্জি।

বৃহস্পতিবার ব্লোস্টার ডিউটিতে না থাকা বাকি ৫০ শতাংশ কর্মীকে ধর্মঘটের দিকে ঠেলে দিয়েও নিজের ধর্মঘট বিরােধী অবস্থা বজায় রাজ্যে এখন ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে চালু আছে সরকারি দপ্তর । তিন দিন করে রোস্টার ডিউটির নির্দেশিকা আছে । বৃহস্পতিবার যাদের ডিউটি আছে শুধু তাদেরই অফিস আসা নিশ্চিত করার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করে । ৫০ শতাংশের উপস্থিতি নিশ্চিত করে বাকি অর্ধেক কর্মীকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে নবান্ন ।

 

Leave a Reply

error: Content is protected !!