Fact Checkখেলাফিচার নিউজ

‛ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ হলে ‛মুসলিম লাইভস ম্যাটার’ নয় কেন? প্রশ্ন ওজিলের

দৈনিক সমাচার, স্পোর্টস ডেস্ক : দীর্ঘদিন ধরে চিন সরকার উইঘুর মুসলিমদের উপর নানা ধরনের অত্যাচার করছে। তা সবার সামনে বারবার উঠে এসেছে। এনিয়ে মুসলিম বিশ্বও নীরব রয়েছে। দীর্ঘ দিন ধরে উইঘুর মুসলিমদের উপর হওয়া অত্যাচারে বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছেন জার্মান ফুটবলার মেসুট ওজিল। এবার নিজের ক্লাব আর্সেনালের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন জার্মান ফুটবলার ওজিল।

উইঘুর মুসলিমদের উপর হওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে ওজিল প্রতিবাদ করলেও তার ক্লাব আর্সেনাল তাঁর পাশে না দাঁড়িয়ে পাশ কাটিয়ে বেরিয়ে যাওয়ায় বেশ চটেছেন ওজিল। নিজের করা ট্যুইট ও আর্সেনলের ভূমিকা নিয়ে ওজিল বলেন, আমার ক্লাব দাবি করেছিল, তারা রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নয়। কিন্তু এটাতো কোনও রাজনীতি নয়। এর আগেও তারা এই ধরনের ইস্যুতে যোগ দিয়েছিল।

তিনি বলেন, আমি যা বলেছি তা চাইনিজদের বিরুদ্ধে নয়। যারা উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচার করছে তাদের বিরুদ্ধে। আর এই সব চোখের সামনে দেখেও যে সব মুসলিম বিশ্ব নীরব তাদের বিরুদ্ধে। তাদের চুপ থাকায় আমি খুব হতাশ হয়েছি। গত বছরই উইঘুর মুসলিমদের উপর হওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে ওজিল প্রতিবাদ করেছিলেন। তুরস্কের প্রায় ১০ লাখের বেশি উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায় চিনে শরণার্থী হিসেবে রয়েছেন। কিন্তু যে ভাবে চিনা সরকার তাদের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে, তা মন থেকে মেনে নিতে পারেননি ওজিল। তাই তিনি নিজের ইনস্টাগ্ৰামে বলেছিলেন, চিনারা কুরআন পুড়িয়ে দিচ্ছে‌। মুসলিমদের মসজিদের যেতে বাধা দিচ্ছে। মসজিদ বন্ধ করে দিচ্ছে। স্কুল বন্ধ করে দিচ্ছে। তাদের ধর্মীয় নেতাদের হত্যা করছে। উইঘুর পুরুষদের ক্যাম্পে বন্দি করে রেখেছে। উইঘুর মহিলাদের জোর করে চিনাদের সাথে থাকতে বাধ্য করছে। কিন্তু এসব দেখেও মুসলিমরা চুপ করে রয়েছে। তারা কোনও প্রতিবাদ করছে না। তাঁরা উইঘুর মুসলিমদের ভুলে গেছে। তারা কি জানে না, অন্যায় করা এবং অন্যায় সহ্য করা একই অপরাধ।

উইঘুর মুসলিমদের উপর হাওয়া অত্যাচারের বিরুদ্ধে ওজিল প্রতিবাদ করলেও, তার ক্লাব আর্সেনাল এই বিষয়ে চুপ রয়েছে। তাই ওজিল বিরক্ত হয়ে জানতে চেয়েছেন আর্সেনাল এই বিষয়ে চুপ কেন? জবাবে আর্সেনাল জানিয়েছে ওজিলের ‌মন্তব্যের সঙ্গে ক্লাবের মতাদর্শের কোনও সম্পর্ক নেই। আর্সেনাল সব সময় একটি অরাজনৈতিক ‌প্রতিষ্ঠান। উইঘুর মুসলিম প্রসঙ্গে আর্সেনাল চুপ থাকলেও সম্প্রতি ‌মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ বাস্কেটবল খেলোয়াড় জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে ‛ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকে সমর্থন করেছিল। আর এই বিষয়টা ওজিলকে অনেক বেশি কষ্ট দিয়েছে। ওজিল মনে করেন আর্সেনাল যেখানে ‛ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ নিয়ে সরব হয়েছে সেখানে মুসলিম লাইভস ম্যাটার নয় কেন?

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, সব মানুষই সমান। আপনি মুসলিম, খ্রিস্টান, সাদা-কালো ‌যা কিছু হতে পারেন। কিন্তু বিভেদ কেন থাকবে। যে ধর্ম-সম্প্রদায়েরই হোক না কেন, এটা কোনও বিষয় নয়, আমরা সবাই সমান। জর্জ ফ্লয়েডের প্রসঙ্গে ক্লাবের ভূমিকা নিয়ে ওজিলের বক্তব্য, আমেরিকায় দেখলাম জর্জ ফ্লয়েডেকে হত্যা করা হল, সেখানে পুরো বিশ্ব ‛ব্লাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন নিয়ে সবাই মুখ খুলল। এটা সঠিক সিদ্ধান্ত। ‌আমরা সবাই সমান। অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করা অবশ্যই ভালো কাজ‌। অনেক কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় এবং ফুটবলার আর্সেনালে আছে। ক্লাব তাদের পাশে দাঁড়িয়ে খুবই ভালো কাজ করেছে। কিন্তু আমি আশা করে ছিলাম মুসলিমদের ক্ষেত্রেও একই কাজ করবে আর্সেনাল। কারণ আর্সেনালেও অনেক মুসলিম খেলোয়াড় খেলেন এবং তাদের অনেক মুসলিম সমর্থকও আছে। আর্সেনালের পাশাপাশি পুরো বিশ্বেরও উচিত এখন এটা বলার ‛মুসলিম লাইভস ম্যাটার’। আর্সেনালকে আমি অনেক কিছু দিয়েছি, মাঠে এবং মাঠের বাইরে। তাই এ ব্যাপারে আর্সেনালের অবস্থানে আমি বেশ হতাশ।

 

Leave a Reply

error: Content is protected !!