Latest Newsদেশফিচার নিউজ

জঙ্গী সন্দেহে আটক শত শত মুসলিম, কিন্তু ৯০ শতাংশ ক্ষেত্রেই তাদের বিরুদ্ধে কিছুই প্রমাণ হয়নি

দৈনিক সমাচার, ডিজিটাল ডেস্ক : ন্যশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি দু’দিন আগে প্রেস বিবৃতিতে জানায়, মুর্শিদাবাদ ও কেরালার এর্নাকুলামে একযোগে অভিযান চালিয়ে তারা মোট ন’জনকে গ্রেফতার করেছে – যারা সবাই ‛আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আল কায়দার সদস্য’।

এ প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের সুপরিচিত সিভিল রাইটস অ্যাক্টিভিস্ট নিশা বিশ্বাস বলেছেন, এর আগেও ভারতের পুলিশ বা বিভিন্ন তদন্তকারী সংস্থা নানা জঙ্গী হামলার ঘটনায় শত শত মুসলিম যুবককে আটক করেছে এবং তাদের ইসলামিক স্টেট বা আল কায়দার সদস্য হিসেবে চার্জ এনেছে। কিন্তু প্রায় নব্বই শতাংশ ক্ষেত্রেই তাদের বিরুদ্ধে শেষ পর্যন্ত কিছুই প্রমাণ হয়নি।

নিশা বিশ্বাস বলেছেন, “আসলে এই সরকারের প্যাটার্নই হল আসল ইস্যু থেকে মানুষের নজর ঘুরিয়ে দেওয়া: মহামারির দায় চাপিয়ে দাও তাবলীগ জামাতের ওপর, শ্রম আইনে সংস্কার নিয়ে সমালোচনা হলে রামমন্দির দেখিয়ে দাও। এই মুহুর্তে সরকার অনেকগুলো বিল পার্লামেন্টে পাস করানোর জন্য মরিয়া। সেগুলো নিয়ে যাতে বেশি কথাবার্তা না হয়, তার জন্য চালাকি করে কিছু লোককে ধরে অ্যান্টি-ন্যাশনাল বলে দাও – মুর্শিদাবাদে ঠিক সেটাই হয়েছে।”

আর এই কাজে গত কয়েক বছরে ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সিকে অবিশ্বাস্য পরিমাণে ক্ষমতা দিয়ে তাদের কাজে লাগানো হচ্ছে বলেও পর্যবেক্ষণ তাঁর। তিনি বলেন, “এনআইএ-কে ক্ষমতা দিয়ে তার অসম্ভব অপব্যবহার করা হচ্ছে। আপনি হিন্দু হলে ভীমা-কোরেগাঁওয়ের মতো কেস, আর মুসলিম হলে কাশ্মীর কিংবা নাগরিকত্ব আইনবিরোধী বিক্ষোভের জন্য মামলা – অজুহাতের কোনও অভাব নেই। বিরোধী কন্ঠস্বরকে স্তব্ধ করানো হচ্ছে।”

 

Leave a Reply

error: Content is protected !!