Sunday, March 3, 2024
Latest Newsদেশফিচার নিউজ

এনআরসি কেড়েছে নাগরিকত্ব, সিনেমার পর্দায় প্রতিবাদ পরিচালক সইফ বৈদ্য-র

দৈনিক সমাচার, ডিজিটাল ডেস্ক: অসমে ২০১৯ সালে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির তালিকা থেকে বাদ পড়েছে প্রায় ১৯ লাখ মানুষ। এনআরসি’র জেরে বিপন্ন নাগরিকত্ব। নাগরিকপঞ্জির নবীকরণ নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার যে অসমে নাগরিকত্ব সমস্যা সমাধানের নীতি হিসেবে তুলে ধরেছিল, তাতে সবচেয়ে বেশি সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে বাঙালিরা। বর্তমানে সেই নীতিতে বাঙালি হিন্দুদের থেকে বাঙালি মুসলিমদের অবস্থা আরও শোচনীয়। এই পরিস্থিতিকে কেন্দ্র করে রূপোলি পর্দায় প্রতিবাদ জানাবে বাঙালি পরিচালক।

জানা গেছে, এই প্রতিবাদী পরিচালকের জন্ম পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়িতে। এই প্রথম হিন্দিতে এনআরসি নিয়ে ছবি তৈরির ভাবনা নিয়ে সকলকে তাক লাগিয়ে দিলেন পরিচালক সইফ বৈদ্য। অসমে এক সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি হয়েছে এই ফিচার ফিল্ম ‛নয়েজ অফ সাইলেন্স’। শ্যুটিং হয়েছে ত্রিপুরার মাটিতেই। আসন্ন ভারতের আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে স্ক্রিনিং হবে বলে জানা গিয়েছে।

বাঙালি পরিচালক বৈদ্য এই ছবিতে দেখানো হয়েছে, এনআরসির জেরে প্রতিনিয়ত অসমে কিভাবে ঘটে গিয়েছে একটার পর একটা আত্মহত্যা। শুধু বয়স্করাই নন, কিশোরী, স্কুলপড়ুয়ারাও নাগরিকত্ব বিপন্নতা অনুভব করেছিল। সেই সব কথায় তুলে ধরা হয়েছে। তবে এই সিনেমায় এনআরসির পাশাপাশি একসঙ্গে জায়গা পেয়েছে রোহিঙ্গা এক কিশোরীর কাহিনিও। দেখানো হয়েছে নিরাপত্তাহীনতা কীভাবে গ্রাস করেছে ওই অসহায় মানুষদের, কী নির্মম যন্ত্রনায় কাতর হয়ে দিন কাটছে তাঁদের।

এই প্রসঙ্গে বাঙালি পরিচালক বৈদ্য বলেন, “প্রথমদিকে আমি রোহিঙ্গাদের সম্যা নিয়ে ছবি করার কথা ভেবেছিলাম। তারপর সেটি প্রোডাকশন ইস্যুতে কাজ থমকে গিয়েছিল। যখন অসমের ওই বন্ধু আমায় তাঁর যন্ত্রণার কথা জানায়, তখনই সিদ্ধান্ত নিই আমি নতুন করে ফের স্ক্রিপ্ট লিখব। আমার ফিল্মের জন্য চাইন নতুন গল্প।”

 

Leave a Reply

error: Content is protected !!