Sunday, April 21, 2024
দেশ

যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হলে কেমন লাগে? ইসরো প্রধানকে চিঠি কাশ্মীরি নারীর

ছবি : সংগৃহিত

দৈনিক সমাচার, ডিজিটাল ডেস্ক : ল্যান্ডার ‛বিক্রম’-এর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া ইসরো প্রধানকে কতটুকু পোড়াচ্ছে? এর সঙ্গে তার পরিবারের অবস্থার তুলনা করে ইসরো প্রধান শিবনকে চিঠি লিখেছেন এক কাশ্মীরি নারী সাংবাদিক।

ইংরেজি পোর্টাল ‘দ্য কুইন্ট’-এর মাধ্যমে ওই চিঠি প্রকাশ করেছেন তিনি। শিরোনাম দিয়েছেন, ‘একজন কাশ্মীরি হিসেবে আমি অনুভব করি প্রিয়জনের সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হলে তা কতটা যন্ত্রণার’। এই চিঠিতে ওই কাশ্মীরি নারী ইসরো প্রধানের উদ্দেশ্যে কিছু প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন।

সৈয়দ ফাইজান বুখারি নামের ওই কাশ্মিরী সাংবাদিক লিখেছেন, ‛শ্রদ্ধেয় ইসরো প্রধান, আপনাকে ও আপনার টিমকে অভিনন্দন জানাই দেশকে গর্বিত করার জন্য আপনার যথেষ্ট চেষ্টার জন্য। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে অন্তিম মুহূর্তে গিয়ে চন্দ্রযান-২ এর ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে আপনার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।’

এরপর তিনি যোগ করেন, ‛আমি জানি, প্রিয় ভারতবর্ষকে আপনি গর্বিত করতে চেয়েছিলেন? কে না চায়? একজন ভারতীয় হিসেবে আমিও ভারতকে গর্বিত করতে চাই। এ ঘটনায় আপনি বিপর্যস্ত। ‘বিক্রম’-এর সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন হওয়ার পর আপনি প্রকাশ্যেই ভেঙে পড়েন। আর আপনার এ কষ্ট তিলে তিলে আমি টের পাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‛কেবল কাশ্মীরিরাই আপনার কষ্ট বুঝতে পারবে। কারণ আপানার মতোই কাশ্মীরে আমার যে চাঁদ (মা) রয়েছে তার সঙ্গে গেল এক মাস ধরে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন আছে।’

ফাইজান আরও লেখেন, আপনি ভাগ্যবান। আপনাকে জড়িয়ে ধরে প্রধানমন্ত্রী সান্ত্বনা দিয়েছেন। কিন্তু দেখুন কতটা হতভাগ্য আমি! এক মাস ধরে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন। কেউ সান্ত্বনা বা সহমর্মিতা জানাতে আসেননি। আমার মতো হাজারো কাশ্মীরির একই অবস্থা। জড়িয়ে ধরা তো দূরের কথা আমাদের জন্য একটি শব্দও খরচ করেননি প্রধানমন্ত্রী।’

Leave a Reply

error: Content is protected !!