Sunday, April 14, 2024
খেলাফিচার নিউজ

গরীব ক্রিকেটারদের আশার আলো দেখাচ্ছে ইরফান-ইউসুফের ‛ক্রিকেট অ্যাকাডেমি অফ পাঠানস’

ছবি : সংগৃহিত

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৈনিক সমাচার, আহেমদাবাদ : ইরফান পাঠান, ইউসুফ পাঠান। দুই পাঠান ভাইকে এক ডাকে চেনেন সবাই। কিন্তু শুধু ক্রিকেট আর ক্রিকেটার – এই দুই শব্দে আটকে নেই তাঁরা। একসময় ভারতীয় ক্রিকেটে ধুন্ধুমার ক্রিকেট খেলা এই দুই ভাই এখন গরীব ক্রিকেট প্রেমীদের ক্রিকেট শেখানোর দায়ভার নিয়েছেন। খুলেছেন নিজেদের ক্রিকেট অ্যাকাডেমি ‛ক্রিকেট অ্যাকাডেমি অফ পাঠানস’।

ভারতের মতো ক্রিকেটপাগল দেশে ক্রিকেটকে পেশা হিসেবে বেছে নিতে চায় অনেকেই। তবে আর্থিক কারণেই হোক, কিংবা সঠিক গাইডেন্সের অভাবে, মাঝপথেই খেই হারিয়ে ফেলে অনেক তরুণ প্রতিভা। তবে এবার তরুণ ক্রিকেটারদের পথ দেখানোর জন্য এগিয়ে এলেন ইরফান, ইউসুফ।

ইতিমধ্যেই দেশের বেশ কয়েকটি বড় শহরে এই অ্যাকাডেমির পথচলা শুরু হয়েছে। ৬টি আলাদা আলাদা শহরে এই একাডেমি খোলার ইচ্ছা পাঠান ভাইয়েদের। চলতি বছরের শেষে আরও ২০টি অ্যাকাডেমি শুরু করার কথাও জানিয়েছেন ইরফান পাঠান।
এই অ্যাকাডেমিগুলিতে প্রথম কোর্স ৮-৯ সপ্তাহের করা হয়েছে, এরপর যে কেউ এডভান্স কোর্স করতে পারে। এখানকার কোচিং কোর্স ফি ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার নির্ধারণ করা হয়েছে।

ইউসুফের কথায়, ‛একজন উদীয়মান ক্রিকেটারের যেধরণের প্র‍্যাক্টিসের প্রয়োজন, আমরা সেরকম সুবিধা দেব।’ নতুন অ্যাকাডেমি খোলার বিষয়ে ইউসুফ বলেন, ‛আমরা বিভিন্ন রাজ্যের সেই সমস্ত স্কুলগুলি পরিদর্শন করব, যেখানে ক্রিকেট খেলার উপযোগী ব্যবস্থা আছে এবং যেখানে আমরা কাজ করতে পারব।’ তিনি আরও জানান, সিএপির একটি দল আগেই বেশকিছু স্কুল বাছাই করে রেখেছে এবং বিগত ৬-৭ মাস থেকে স্কুলগুলিতে কাজ শুরু করার পরিকল্পনা চলছে।

উল্লেখ্য, ইউসুফ ও ইরফানের জন্ম গুজরাতের এক মধ্যবিত্ত পরিবারে। তাদের পিতা মেহমুদ পাঠান ছিলেন এলাকার স্থানীয় মসজিদের সামান্য একজন মুয়াজ্জিন। দারিদ্র্যতার সঙ্গে লড়াই করে ভারতীয় দলে সুযোগ করে নেওয়া এই দুই ভাই মূলত গরীব ক্রিকেটারদের পাশে দাড়াতেই এই উদ্যোগ নিয়েছেন।

এবিষয়ে ইউসুফ জানিয়েছেন, এই অ্যাকাডেমির মূল লক্ষ্য থাকবে কোচদের ও তরুণ প্রতিভাদের উপযুক্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া। সম্প্রতি রায়পুরে চতুর্থ অ্যাকাডেমি প্রতিষ্ঠিত করতে পেরে ইরফানও অবশ্য খুশিতে ডগমগ। তিনি জানিয়েছেন, ‛সত্যি বলতে এটি আমাদের জন্য একটি আনন্দের বিষয়। ক্রিকেট আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে। এবার আমাদের তরফ থেকে কিছু দেওয়ার পালা। ভারতে প্রতিভার অভাব নেই। শুধু দরকার সেই সব প্রতিভাকে সঠিক পথ দেখানো।’ ইরফান-ইউসুফ এর এই উদ্যোগ তরুণ প্রতিভাদের জন্য কতটা লাভবান হবে, তা অবশ্য সময়ই বলবে।

Leave a Reply

error: Content is protected !!